উটির দর্শনীয় স্থান

উটির দর্শনীয় স্থান

দক্ষিণ ভারতের দুর্নিবার এক আকর্ষণ হল তামিলনাড়ু। অপরূপ পবিত্র মন্দির থেকে শুরু করে সমুদ্র সৈকত, নজরকাড়া দুর্গ, বিশাল জলপ্রপাতসহ তামিলনাড়ু পরিপূর্ণ নানা আকর্ষণে। পাহাড়-সমুদ্রে ঘেরা তামিলনাড়ু তাই পর্যটন গন্তব্য হিসেবে দারুণ প্রিয়। আর এই তামিলনাড়ুর এক অপূর্ব রত্ন হল উটি Ooty 

মেঘের দেশে মন ভালো করে দেয়ার মতো কোনও জায়গায় যদি হারাতে চান তবে উটি আপনার জন্য চমৎকার এক জায়গা। দক্ষিণ ভারতের পাহাড়ঘেরা এই শৈল শহর নীলগিরি পাহাড়ের কোলে দাঁড়িয়ে থাকা স্বপ্ন-সুন্দর এক দেশ। এই পাহাড়ি রানীর শহরে এসে আপনি মুগ্ধতার জগতে হারাবেন নিশ্চিত। তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই উটির দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে।

 গভর্নমেন্ট রোজ পার্ক- উটিতে আছে গভর্নমেন্ট রোজ পার্ক। আপনি যদি গোলাপ ভালোবাসেন তাহলে আপনাকে যেতে হবে এই পার্কে। তামিলনাড়ু হর্টিকালচ্যার ডিপার্টমেন্ট কর্তৃক পরিচালিত এই পার্কটি পাহাড়ের ঢালে অবস্থিত। এখানে আপনি সাড়ে তিন হাজারের বেশি প্রজাতির গোলাপ দেখতে পাবেন। এমনকি এখানে কালো ও সবুজ রঙেরও গোলাপ দেখতে পাবেন। গোলাপের এই রাজ্যে সর্বত্রই মনোরম সৌন্দর্যের ছড়াছড়ি।

 দেদাবেত্তা শৃঙ্গ- উটি থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই শৃঙ্গ এই অঞ্চলের সর্বোচ্চ কেন্দ্রবিন্দু। খুব উঁচু জায়গা থেকে যারা প্রকৃতির সৌন্দর্য দেখতে পছন্দ করেন তাদের জন্য দেদাবেত্তা শৃঙ্গ দারুণ জায়গা। এখান থেকে পুরো উটি শহরের চমৎকার দৃশ্য চোখে পড়ে। এখানে 'টেলিস্কোপ ঘর' স্থাপন করা হয়েছে। যেখান থেকে আপনি নীলগিরির অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন।

 বোটানিক্যাল গার্ডেন- গার্ডেনটি প্রকৃতির এক মনোরম আবাস। প্রায় ২২ একর জায়গাজুড়ে বিস্তৃত এই বাগান নানা ফুলের গাছ, ফার্ন ও অর্কিডে পরিপূর্ণ। এখানে হাজার হাজার প্রজাতির গাছপালা রয়েছে। এখানে দুই কোটি বছর বয়সী একটি জীবাশ্ম বৃক্ষ দেখতে পাবেন। আরও আছে মাঙ্কি'স পাজেল ট্রি। নাম মাঙ্কিস ট্রি হলেও এই গাছে বানর চড়তে পারে না। এই বোটানিক্যাল গার্ডেনে শান্ত মধুর পরিবেশে বৃক্ষরাজির মনোরম শোভা মুগ্ধ করে পর্যটকদের। এখানে প্রত্যেক বছর মে মাসে ফুলের প্রদর্শনী হয় যা ‘গ্রীষ্ম উৎসব’ নামে পরিচিত।

 উটি লেক- উটি থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে এই কৃত্রিম লেকটি অবস্থিত। এই লেকটি ইউক্যালিপটাস গাছ দিয়ে ঘেরা। মনোরম এই লেকে বিভিন্ন প্রজাতির পরিযায়ী পাখি ঝাঁকে ঝাঁকে ভিড় করে। চমৎকার এই লেকের সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য এখানে নৌকার ব্যবস্থা আছে। বিকেলটা এখানে নৌকা ভ্রমণ করে কাটিয়ে দিতে পারবেন। এই লেকের কিনারা বরাবর একটি হরিণ উদ্যান আছে। এই পার্কটি ভারতের সেরা কয়েকটি চিড়িয়াখানার মধ্যে অন্যতম।

 ওয়্যাক্স ওয়ার্ল্ড- বিভিন্ন মোমের মূর্তি দেখতে চাইলে আপনাকে যেতে হবে ওয়্যাক্স ওয়ার্ল্ডে। বিখ্যাত মুক্তিযোদ্ধা, সামাজিক কর্মী ও রাজনীতিবিদদের মোমের মূর্তি এখানে দেখতে পাবেন ।

 ট্রাইবাল মিউজিয়াম- উটি থেকে ১০ কিলোমিটার দূরত্বে এই মিউজিয়াম অবস্থিত। এটি উপজাতীয় গবেষণা কেন্দ্রের একটি অংশ। যারা এই অঞ্চলের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে আগ্রহী তারা এখানে যেতে পারেন। এখানে তামিলনাড়ু এবং আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের আদিম উপজাতীয় দলের বিরল হস্তনির্মিত সামগ্রী ও ছবি প্রদর্শিত হয়।