তিসির তেল ব্যবহার করে দেখুন হাজার রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব

তিসির তেল ব্যবহার করে দেখুন হাজার রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব

তিসি একপ্রকার গুল্ম জাতীয় উদ্ভিদ। ইংরেজিতে যার বৈজ্ঞানিক নাম Linum Usitatissimum। মূলত শস্য বীজ হিসেবে তিসির চাষ করা হয় আমাদের দেশে। ফাল্গুন ও চৈত্র মাসে এই ফসল ঘরে তোলা হয়।তিসি বীজ গাছের প্রতিটি অংশ আমাদের কাজে লাগে। যেমনঃ তিসির গাছের বাকল বা আঁশ থেকে আমরা লিনেন জাতীয় কাপড় তৈরি করি। তিসির ফুল দিয়ে নানা রকম ঔষুধি কাজে ব্যবহার করা হয়। তিসির ফল মানে তিসির বীজ থেকে আমরা তিসির তেল পেয়ে থাকি। সুতরাং তিসির প্রতিটি অংশ আমাদের জন্য প্রয়োজনীয়। তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই তিসির তেল এর উপকারিতা সম্পর্কে।

১.ওজন কমাতে- তিসির তেল ওজন কমাতে খুব উপকারী।এই তেল নিয়মিত খেলে শরীরে চর্বি জমে না। ফলে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে।দেহের কোলন সিস্টেম উন্নত করে এবং পাকস্থলীর হজম কাজে সহয়তা করে। তাছাড়া শরীর থেকে বিষাক্ত টক্সিন বের করতে সাহায্য করে।

২.কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে- বর্তমানে  সবাই কম-বেশি এই সমস্যা ভুগে থাকে। বেশির ভাগ সময় বাইরের খাবার খেয়ে পেটে গ্যাসের সমস্যা হয় এবং পরে তা কোষ্ঠকাঠিন্য। তিসির তেল এই প্রতিদিনের সমস্যা থেকে মুক্ত করতে সাহায্য করবে।

৩.ডায়ারিয়া রোগে- অনেকেই আছেন ঘন ঘন ডায়রিয়ার আক্রান্ত হয়ে পড়েন। নিয়মিত তিসির তেল সেবন করলে এই সমস্যা দূর করবে। কারন তিসির তেল মেটাবলিজম সিস্টেম উন্নত করতে সাহায্য করে।

৪.ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে- বর্তমান সময়ে ক্যান্সার রোগীর সংখ্যা নেতিবাচক হারে বেড়ে চলেছে। তিসির তেল আপনাকে প্রাকৃতিক ভাবে ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করবে। বিশেষ করে ব্রেস্ট ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে। ALA  যা শরীরে থাকা ক্যান্সারের কোষ তৈরি হতে বাধা দেয়।

৫.হার্ট সুস্থ রাখতে সাহায্য করে- গবেষণায় দেখা গেছে যে তিসির তেল হার্ট কে বিশষ ভাবে সুরক্ষা দেয়। কারন এতে থাকা Alpha linolenic acid হার্টকে সুস্থ রাখে এবং হার্টজনিত সকল রোগকে দূরে রাখে।

৬.কোলেস্টেরল কমায়- তিসির তেল  শরীরের কোলেস্টেরলের মাএা কমাতে সাহায্য করে। খারাপ কোলেস্টেরল LDL কে উল্লেখযোগ্য হারে কমায় তিসির তেলে থাকা ALA।

৭.ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রন করে- প্রায় প্রতিটি ঘরে একজন করে ডায়াবেটিক রোগী পাওয়া যাবে। বলতে সাধারণ একটি রোগ পরিনত হয়েছে ডায়াবেটিস। নিয়মিত তিসির তেল সেবনে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে।প্রি-ডায়বেটিস রোগীর সংখ্যা ও কিন্তু কম নয়। সেখানেও আপনাকে সাহায্য করবে তিসির তেল।