উত্তর কলকাতায় কংগ্রেস আসন না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ সোমেন পুত্র রোহন মিত্র

উত্তর কলকাতায় কংগ্রেস আসন না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ সোমেন পুত্র রোহন মিত্র

সবেমাত্র বাম-কংগ্রেসের আসনরফা শেষ হয়েছে। তবে ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট তথা ভাইজানের দলের সঙ্গে জোট নিয়ে কংগ্রেসের অন্দরেই ক্ষোভ রয়েছে। এর মাঝে প্রকাশ্যেই ক্ষোভ উগড়ে দিলেন প্রয়াত কংগ্রেস নেতা সোমেন মিত্রের পুত্র রোহন। রবিবার সকালে টুইট করেন তিনি। সেখানে তাঁর কটাক্ষ, উত্তর কলকাতায় কংগ্রেসটাকে তুলে দেওয়া হয়েছে। এর পর আর কেউ কংগ্রেস করবে না।

টুইটারে রোহন মিত্র লেখেন, 'প্রথমে শুনলাম ২৯৪, তারপর হল ১৭০, সেখান থেকে ১৪৭, এখন দেখি সেঞ্চুরিও হল না, ১০০ এর আগেই আউট হয়ে গেলাম। তাও খালি লেগ সাইড দিয়ে। একটা straight drive ও মারলাম না। এর পরই সোমেন পুত্রের কটাক্ষ, 'আজকে তো তরমুজ নেই, আজকে কি তার ভূত এসে আসন রফা করল?' বাম-কংগ্রেস জোটের ক্ষেত্রে সোমেন মিত্রর কথাও তুলে আনেন রোহন।

 টুইটারে রোহন লেখেন, 'দলের সম্মানকে গুরুত্ব দিয়ে জোট করেননি।' তিনি আরও লেখেন, 'সেদিন আমার বাবা খারাপ ছিল, প্রতি মুহূর্তে তাকে অনেক কথা শুনতে হয়েছিল, মেনে নিলাম, সেও মেনে নিয়েছিল, কিন্তু কোনওদিন সে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে মেনে নেইনি, রুখে দাঁড়িয়েছিল, আর আজকে?' এরপরই আইএসএফের সঙ্গে জোট নিয়ে কংগ্রেসকে বিঁধেছেন।  উত্তর কলকাতায় কংগ্রেস আসন না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ রোহন।

নাম না করেই কংগ্রেসের প্রদেশ সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরীকে কটাক্ষ করেছেন উত্তর কলকাতার কংগ্রেসকে তুলে দেওয়ার যড়যন্ত্র করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছেন রোহন। টুইটারে ক্ষোভ উগরে দিয়ে রোহন লিখেছেন, 'খবর পাচ্ছি যে, পুরো উত্তর কলকাতায় কংগ্রেস একটা আসন পায়নি, সব আসন জোট সঙ্গীদের দেওয়া হয়েছে। তাহলে আগামী দিনে কেউ উত্তর কলকাতাতে কংগ্রেস করবে? বাবা থাকলে এটা হত না।

উত্তর কলকাতায় কংগ্রেসটাকে তুলে দেওয়া কেন হল? মুর্শিদাবাদ আর মালদহ না বলে?'  প্রসঙ্গত, আসন নিয়ে বহু দড়ি টানাটানির পর শেষপর্যন্ত বাম-কংগ্রেসের জোট হয়েছে। মাত্র ৯২টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে কংগ্রেস। এর মধ্যে উত্তর কলকাতার একটি আসনও নেই। যা নিয়ে দলের অন্দরে ক্ষোভ রয়েছে। ক্ষোভ রয়েছে ভাইজানের দলের সঙ্গে জোট নিয়ে। ফলে কংগ্রেস আইএসএফের সঙ্গে যৌথ সভা বা ব়্যালি করবে কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন তৈরি হয়েছে। ঠিক এই পরিস্থিতিতে নাম না করেই অধীরকে বিঁধলেন সোমেন পুত্র।