বাড়িতে বসেই চটজলদি বানিয়ে ফেলুন রুই মাছের টিক্কা কারি

বাড়িতে বসেই চটজলদি বানিয়ে ফেলুন রুই মাছের টিক্কা কারি

বাঙালি মানেই, মাছে ভাতে বাঙালি। দুপুরবেলা বাঙালি মানুষ ভাত খাবেন, আর পাতে মাছ পড়বে না এমনটা হয় না। কিন্তু প্রতিদিন এক নাগাড়ে মাছের ঠিক কি রান্না করবেন তা যদি না পান তাহলে চটজলদি বাড়িতে এই রান্নাটা ট্রাই করতে পারেন। বাড়িতে থাকা অতি সাধারণ মশলা দিয়ে শুধু একটু নিয়মের এদিক-ওদিক করলেই চটজলদি হয়ে যাবে স্পেশাল রেসিপি রুই মাছের টিক্কা কারি।এই রেসিপিটি বানানো খুব সহজ। তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই রেসিপিটি সম্পর্কে।

রুই মাছের টিক্কা কারি তৈরীর উপকরণ-

১.কাতলা মাছের টুকরো ৫ টি

২.কাজু বাদাম ১৫ টি

৩.পেঁয়াজ কুচি একটি

৪.আদা বাটা এক টেবিল চামচ

৫.রসুন বাটা এক টেবিল চামচ

৬.দুটি টমেটো বাটা

৭.নুন, মিষ্টি স্বাদমতো

৮.জিরে গুঁড়ো এক চা চামচ

৯.ধনে গুঁড়ো এক চা চামচ

১০.কাশ্মীরি লংকা গুঁড়ো এক চা চামচ

১১.ঝাল লংকা গুঁড়ো এক চা চামচ

১২.লেবুর রস দুই টেবিল চামচ

১৩.হলুদ গুঁড়ো এক চা চামচ

১৪.সরষের তেল চার টেবিল চামচ

১৫.ধনেপাতা কুচি এক কাপ

১৬.চিরে রাখা কাঁচা লঙ্কা

১৭.তেজপাতা দুটি

১৮.শুকনো লঙ্কা দুটি

১৯.এলাচ পরিমাণ মতো

২০.গোল মরিচ পরিমাণ মতো

রুই মাছের টিক্কা কারি তৈরীর পদ্ধতি-

প্রথমে মাছের টুকরোগুলোকে লেবুর রস, নুন, হলুদ মাখিয়ে অন্তত ২ ঘণ্টা মেরিনেট করে রাখতে হবে। তেলে ভেজে তুলে রেখে দিতে হবে। কড়াইতে সরষের তেল গরম করে তাতে তেজপাতা, শুকনো লঙ্কা, এলাচ, গোলমরিচ, দিয়ে পেঁয়াজ কুচি, আদা বাটা, রসুন বাটা, টমেটো বাটা এবং সমস্ত মশলা ভালো করে মিশিয়ে দিতে হবে। কাজুবাদাম এর পেস্ট বানিয়ে এর মধ্যে দিয়ে মেশাতে হবে।

মাছ দিতে হবে। নুন মিষ্টি স্বাদমতো দিতে হবে। মাছের টুকরো দিয়ে সামান্য উষ্ণ জল দিয়ে ঢাকা দিয়ে রাখতে হবে। ঢাকা খুলে রান্নার মাঝে ছোট একটা কাঁচের বাটির মাঝে একটা কয়লা জ্বালিয়ে উপর থেকে ঘি দিতে হবে। তারপর আবার ঢাকা দিয়ে রাখতে হবে। এতে রান্নায় ধোঁয়া ধোঁয়া গন্ধ হবে। ঢাকা খুলে বাটি সরিয়ে ধনেপাতা কুচি দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করতে হবে রুই মাছের টিক্কা কারি।