জয়নগরে বিধায়কের বিরুদ্ধে পোস্টার, প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব

জয়নগরে বিধায়কের বিরুদ্ধে পোস্টার, প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব

ভোটের আগে‌ তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে। শাসকদলের এক বিধায়কের বিরুদ্ধে পোস্টার পড়ল দক্ষিণ ২৪ পরগণার জয়নগরে। পোস্টার পড়েছে জয়নগরের বিধায়ক বিশ্বনাথ দাসের বিরুদ্ধে। আর পোস্টার লাগানোর অভিযোগ উঠেছে খোদ তৃণমূল নেতা, কর্মীদের বিরুদ্ধেই। বিশ্বনাথের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তুলে পোস্টারে লেখা হয়েছে, 'এই বিধায়ক চাই না।'

শনিবার থেকে রবিবার রাত পর্যন্ত জয়নগর ১ নম্বর ব্লকের দক্ষিণ বারাসত, বহড়ু, হরিনারায়ণপুর, রাজাপুর করাবেগ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় বিধায়ক বিশ্বনাথ দাসের নামে পোস্টার পড়তে শুরু করে। পোস্টার দেখা যায় জয়নগর ২ ব্লকের গড়দেওয়ানি, বেলে দুর্গানগর, ময়দা, ফুটিগোদা, সাহাজাদাপুর, নতুনহাট-সহ একাধিক এলাকাতেও।

জয়নগর-মজিলপুর পুরসভার বিভিন্ন ওর্য়াডেও বিধায়কের নামে পোস্টার পড়ে। পোস্টারে লেখা হয়েছে 'দুর্নীতিতে যুক্ত বিধায়কের পরিবর্তন চাই। স্বচ্ছ ভাবমূর্তির প্রার্থী চাই।' আর এই পোস্টার ঘিরে জোর চাপানউতোর শুরু হয় তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে। জয়নগর ২ নং ব্লকের কিসান সেলের সভাপতি জুলফিকার সর্দারের কথায়, '‌দীর্ঘদিন এসইউসিআই-র হাতে ছিল জয়নগর কেন্দ্র।

২০১৬ সালে এই কেন্দ্রে তৃণমূলকে ক্ষমতায় নিয়ে এসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতকে শক্তিশালী করেছিলাম। কিন্তু বর্তমান বিধায়ক দুর্নীতিগ্রস্ত। তাই উন্নয়নের স্বার্থে আমরা এই দুর্নীতিগ্রস্ত বিধায়কের বদলে স্বচ্ছ ভাবমূর্তির বিধায়ক চাই।'‌ বর্ষীয়ান তৃণমূল নেতা গৌর সরকার বলেছেন, '‌বিশ্বনাথ একটা কাটমানিখোর, তোলাবাজ।

তাই আমি এই বিধায়কের পরিবর্তন চেয়ে জেলা ও রাজ্যস্তরে জানিয়েছি।'‌ তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিশ্বনাথ। পাল্টা তাঁর দাবি, '‌এলাকায় উন্নয়নমূলক কাজ দেখে ওঁরা ভয় পেয়ে ভুল বকছেন। ওঁরা দিনে তৃণমূল, রাতে বিজেপি করেন। পোস্টার লাগানোর বিষয়টি জেলা সভাপতিকে জানিয়েছি। দল যা বলবে সেটাই করব।'‌