বারান্দায় এই গাছগুলো লাগালে ঘর থাকবে শীতল

বারান্দায় এই গাছগুলো লাগালে ঘর থাকবে শীতল

গরমের দাবদাহে মানুষ নাজেহাল। তাপমাত্রার পারদ ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। এই পরিস্থিতিতে বেশিরভাগ বাড়িতে এখন কুলার ই প্রধান ভরসা। কিন্তু এই কুলার ব্যবহারের বড় সমস্যা হল মাসের শেষে মোটা অংকের ইলেকট্রিক বিল। তবে আজ আমরা এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আপনাদের এই গরম থেকে রেহাই পাওয়ার এমন একটি উপায় বলবো যাতে পরিবেশেও থাকবে সবুজ এবং লাগবেনা কোন ইলেকট্রিক বিল।

এমন অনেক গাছপালা রয়েছে যেগুলো শুধু অক্সিজেন ও সবুজায়নই প্রদান করে না উপরন্তু শীতল অনুভূতিও প্রদান করে। তাই আপনারা যদি এই গাছগুলি আপনার বারান্দায় লাগান তাহলে শীতল অনুভূতি পাবেন। তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই গাছগুলো সম্পর্কে।

১. ঘৃতকুমারী- ঘৃতকুমারী তে রয়েছে প্রচুর ঔষধি গুন। বিভিন্ন ওষুধ তৈরিতে কাজে লাগে এই গাছ। ঘৃতকুমারী বা এলোভেরা চুল ও ত্বকের জন্য বিশেষ উপকারী। এটি ব্যবহারে কোন পার্শপ্রতিক্রিয়া থাকেনা। এছাড়াও এর বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো যদি এই গাছকে আপনি আপনার বারান্দায় লাগান তাহলে বারান্দার চারপাশের পরিবেশ ঠান্ডা করতে বিশেষ সহায়তা করে।

২.স্নেক প্ল্যান্ট - আপনি যদি এই গাছ বাড়ির বারান্দায় লাগান তাহলে অক্সিজেন সরবরাহ বৃদ্ধি করে এছাড়াও বাড়ির আবহাওয়া ঠান্ডা করতে বিশেষ সহায়তা করে।

৩.আরিকা পাম- প্রাকৃতিক আদ্রতা ধরে রাখার বিশেষ ক্ষমতা রয়েছে এই গাছের। গ্রীষ্মে আপনার বাড়িতে যদি এই গাছ লাগান তাহলে বাড়ির আবহাওয়া অনেক ঠান্ডা করবে।

৪.ডাইফেনবাচিয়া- এই গাছটি অক্সিজেন সরবরাহ করতে বিশেষ উপযোগী। এছাড়াও গাছটি চারপাশে শীতল আবহাওয়া বিশেষভাবে তৈরি করে।

৫.বেবি রবার- এই গাছটি যদি বাড়ির বারান্দা তে লাগান তাহলে শীতল অনুভূতি এর পাশাপাশি সতেজতাও প্রদান করবে। কাদের জন্য আপনাকে কুলার ও ব্যবহার করতে হবে না।

৬.ড্রাকেনা ফ্রাগান্সস- এই গাছটি আর্দ্রতা ধরে রাখতে বিশেষ ভাবে সক্ষম। এছাড়াও এটি শীতলতা প্রদানের পাশাপাশি সুগন্ধিও প্রদান করে থাকে।