পিএম কিষান সম্মান নিধি, আজই প্রথম কিস্তি পেতে চলেছেন রাজ্যের কৃষকরা!

পিএম কিষান সম্মান নিধি, আজই প্রথম কিস্তি পেতে চলেছেন রাজ্যের কৃষকরা!

কৃষি মন্ত্রক সুত্রে খবর শুক্রবারই দেশের প্রায় ৯ কোটি কৃষকদের জন্য কৃষক সম্মান নিধির অষ্টম দফার টাকা দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi)। যার মধ্যে রয়েছে বাংলার প্রায় ৭ লক্ষ কৃষকের নাম। পিএম কিষান (PM Kisan Samman Nidhi) সম্মান নিধি যোজনায় কৃষকদের উদ্দেশ্যে বছরে ৬ হাজার টাকা সাহায্য দান করে কেন্দ্র। যা দেওয়া হয় মোট তিন কিস্তিতে।

এরই প্রথম কিস্তির দু হাজার টাকা এদিন পেতে চলেছেন বাংলার সাত লক্ষ কৃষক। বাকিদের নাম এখনো ভেরিফাই না হওয়ায় সুবিধা পাবেন না তারা। শুক্রবার সকাল ১১ টায় এ নিয়ে একটি ভার্চুয়াল বৈঠকে অংশগ্রহণ করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেখান থেকেই কৃষকদের উদ্দেশ্যে প্রায় ১৯ হাজার কোটি টাকা দেওয়ার বন্দোবস্ত করবেন তিনি। জানা গিয়েছে এই অনুষ্ঠানে বেশ কিছু কৃষকের সঙ্গে কথাও বলতে পারেন তিনি। এই মুহূর্তে কোভিডে রীতিমতো বিধ্বস্ত অর্থনীতি।

কৃষিজীবি মানুষেরও রোজগার ঠেকেছে তলানীতে। এমতাস্থায় এই টাকা কিছুটা যে সুবিধা করবে তা বলাই বাহুল্য। প্রসঙ্গত, পিএম কিষান সম্মান নিধির টাকা নিয়ে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Bandopadhyay)। অন্যদিকে বিধানসভা নির্বাচনে প্রচারে এসে রাজ্য সরকারের প্রতি প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রধান অভিযোগগুলির একটি ছিল এই পিএম কিষান সম্মান নিধি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বারবার অভিযোগ করেছিলেন, রাজ্য সরকারের গড়িমসির কারণেই কেন্দ্র সরকারের যোজনা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এ রাজ্যের কৃষকরা।

অভিযোগ ছিল কৃষকদের নামের তালিকাই নাকি কেন্দ্রকে পাঠায়নি রাজ্য। ক্ষমতায় ফিরেই এ বিষয়ে চিঠি লিখে প্রধানমন্ত্রীকে তার প্রতিশ্রুতির কথা মনে করিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চিঠি দেওয়ার পর সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, 'পোর্টালে তুলে দেওয়া হয়েছে কৃষকদের নাম। আশা করব। টাকাটা তাড়াতাড়ি দেওয়া হবে। পিএম কিষান যোজনায় ১৪.৯১ লক্ষ কৃষকদের নাম খতিয়ে দেখে তালিকা পাঠিয়ে দিয়েছি।' এরপরই নড়ে চড়ে বসে কেন্দ্রও। কেন্দ্রের কৃষিমন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে, পশ্চিমবঙ্গের কৃষকদের প্রথম কিস্তিতে ২০০০ টাকা করে দেওয়া হবে । ১৪ মে সরাসরি তাঁদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমা পড়বে সেই টাকা ।