মল্লিকার্জুন মন্দির

মল্লিকার্জুন মন্দির

মল্লিকার্জুন Mallikarjun temple জ্যোতির্লিঙ্গ মন্দির হল দক্ষিণ ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের শ্রীশৈলমে অবস্থিত একটি শিবমন্দির। এটি শিবের পবিত্রতম বারোটি জ্যোতির্লিঙ্গ মন্দিরের অন্যতম। মল্লিকার্জুন জ্যোতির্লিঙ্গ মন্দির ২৭৫টি পাদল পেত্রা স্থলমের অন্যতম মন্দিরও বটে।

শিব মহাপুরাণ অনুসারে, একবার সৃষ্টিকর্তা ব্রহ্মা ও রক্ষাকর্তা বিষ্ণুর মধ্যে তাঁদের মধ্যে জগতে কে শ্রেষ্ঠ তা নিয়ে তর্ক বেধেছিল। তাঁদের পরীক্ষা করার জন্য শিব ত্রিভুবনকে একটি অনন্ত আলোর লিঙ্গ বা জ্যোতির্লিঙ্গ দ্বারা বিভক্ত করেছিলেন। বিষ্ণু ও ব্রহ্মা দুই দিকে সেই লিঙ্গের উৎস খুঁজতে বের হন। ব্রহ্মা মিথ্যা বলেন যে তিনি জ্যোতির্লিঙ্গের অন্ত খুঁজে পেয়েছেন।

কিন্তু বিষ্ণু পরাজয় স্বীকার করে নেন। শিব দ্বিতীয় জ্যোতির্লিঙ্গ রূপে আবির্ভূত হয়ে ব্রহ্মাকে শাপ দেন যে কোনো অনুষ্ঠানে তাঁর স্থান থাকবে না। অন্যদিকে তিনি বিষ্ণুকে আশীর্বাদ করেন যে বিষ্ণু প্রলয়কাল অবধি পূজিত হবেন। জ্যোতির্লিঙ্গ হল সর্বোচ্চ অখণ্ড সত্য, যাতে শিব আংশিকভাবে আবির্ভূত হন।

জ্যোতির্লিঙ্গ মন্দিরগুলি সেইখানেই গড়ে উঠেছে যেখানে শিব আলোর অগ্নিময় লিঙ্গরূপে আবির্ভূত হয়েছিলেন। প্রথমদিকে মনে করা হত জ্যোতির্লিঙ্গের সংখ্যা ৬৪। এর মধ্যে ১২টিকে পবিত্রতম বলে গণ্য করা হয়।প্রত্যেকটি জ্যোতির্লিঙ্গের পৃথক পৃথক নাম আছে। এগুলিকে শিবের বিভিন্ন রূপভেদ মনে করা হয়। প্রত্যেক মন্দিরেই শিবলিঙ্গ শিবের অনন্ত প্রকৃতির প্রতীক আদি ও অন্তহীন স্তম্ভের প্রতিনিধিত্ব করে।

বারোটি জ্যোতির্লিঙ্গ হল গুজরাতের সোমনাথ ও দ্বারকার নাগেশ্বর মন্দির, অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীশৈলমের মল্লিকার্জুন, মধ্যপ্রদেশের মহাকালেশ্বর ও ওঙ্কারেশ্বর, হিমালয়ে কেদারনাথ, মহারাষ্ট্রে ভীমশঙ্কর মন্দির, ঘৃষ্মেশ্বর ও ত্র্যম্বকেশ্বর মন্দির, উত্তরপ্রদেশের বারাণসীতে কাশী বিশ্বনাথ মন্দির, ঝাড়খণ্ডে বৈদ্যনাথ মন্দির এবং তামিলনাড়ুর রামেশ্বরমে রামনাথস্বামী মন্দির।