নাক বন্ধ থেকে বাঁচতে কি কি করবেন জেনে নিন

নাক বন্ধ থেকে বাঁচতে কি কি করবেন জেনে নিন

শীতকালে দূষণের মাত্রা খুব বেড়ে যায়। এ কারণে শরীরে ব্যাক্টেরিয়া ও ভাইরাসের আধিক্যও বেড়ে যেতে থাকে। ফলে ঠাণ্ডা লাগা, কাশি এবং ইনফ্লুয়েঞ্জায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও বেড়ে যায়। এছাড়া যে সমস্যাটি সবচেয়ে বেশি দেখতে পাওয়া যায় সেটি হলো, নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া। আর নাক বন্ধ থাকলে কিছুই ভালো লাগে না।

এমনকি মুখে কোনও স্বাদও ঠিকমতো পাওয়া যায় না। তখন অনেকেই ওষুধ দিয়ে বন্ধ নাক ছাড়িয়ে নেন। কিন্তু নাকে অতিরিক্ত পরিমাণে ওষুধ দেওয়াও শরীরের পক্ষে খুব খারাপ।এই নাক বন্ধ হওয়ার থেকে বাঁচার জন্য কিছু ঘরোয়া উপায় আছে। তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই উপায় গুলো সম্পর্কে।

১.চা বা স্যুপ- আদা চা, মেন্থল চা অথবা গরম স্যুপ খেতে পারেন। এতে গলা ও নাক পরিষ্কার হয়ে থাকে। আদা দেওয়া চা পানে গলাতে ব্যথা থাকলে সেটিও কমে যাবে। আর স্যুপ খাওয়ার ফলে শরীর গরম থাকবে যার ফলে ঠাণ্ডা লাগার সম্ভাবনা কমে যায়।

২.গরম জলের ভাপ- আবার বন্ধ নাক খুলতে গরম জলের ভাপ নিতে পারেন। এজন্য গরম জলেতে তুলসী পাতা অথবা কোনও ওষুধও মিশিয়ে নেওয়া যেতে পারে। এতে কমে যাবে মাথার ব্যথাও।

৩.বেশি বালিশ ব্যবহার করতে হবে- নাক বন্ধের সময় যখন ঘুমাতে যাবেন তখন ২ থেকে ৩টি বালিশের ওপর মাথা রেখে ঘুমাতে হবে। তাহলে কিছুটা হলেও আরাম পাওয়া যায়।

৪.স্যালাইন স্প্রে-বন্ধ নাকের জন্য ঝাঁঝালো ওষুধ নয়, স্যালাইন স্প্রে ব্যবহার করতে পারেন। স্যালাইন স্প্রে নাকের পক্ষে ক্ষতিকারক হবে না। এটা যেকোনও ওষুধের তুলনায় অনেক পাতলা হয়, ফলে জ্বালা জ্বালা ভাব হওয়ার সম্ভাবনও থাকে না।

৫.স্নানের সময় ঠাণ্ডা জল ব্যবহার করতে হবে- এছাড়া খুব বেশি গরম জলে স্নান করা চলবে না। যদি কোনও অসুবিধা না থাকে তাহলে মাথায় হালকা গরম জল না ঢেলে ঠাণ্ডা জলই ঢালতে পারেন। এতে দেখবেন নাক বন্ধ হয়ে যাওয়ার সমস্যা ধীরে ধীরে কমে যাবে।

৬.বাইরে নাক চাপা দিয়ে বেরোতে হবে- এছাড়া বাইরে বেরুনোর সময় নাকে চাপা দিয়ে তবেই বাইরে বেরোতে হবে। নাকে সরাসরি ঠাণ্ডা হাওয়া না লাগলে কোনও সমস্যার সৃষ্টি হবে না।