সাইজে ছোট আধার কার্ডের জন্য কী ভাবে করবেন আবেদন জেনে নিন

সাইজে ছোট আধার কার্ডের জন্য কী ভাবে করবেন আবেদন জেনে নিন

যিনি যা-ই বলুন না কেন, আধার কার্ডের (Aadhaar Card) গড়নটা কিন্তু খুব একটা সুবিধার ছিল না। ঠিক তেমনই সুবিধার ছিল না তার আয়তনও। নাগরিকত্বের সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নথি আর তার কী না ওই রকম ফিনফিনে কাগজ! জিনিসটাকে মজবুত করতে এত দিন আমরা ল্যামিনেশন করিয়ে এসেছি বটে, কিন্তু সেও তো জোড়াতালি দেওয়া একটা ব্যাপার! এই অসুবিধার কথা যদি বা উপেক্ষা করাও যায়, আয়তনের দিকটা নিয়ে অভিযোগ থেকেই যায়- ওটা দূর হওয়ার নয়! আয়তাকার এই কার্ড জামা বা প্যান্টের কোনও পকেটেই ফিট হওয়ার জন্য তৈরি হয়নি, সঙ্গে নিয়ে ঘুরতে হলে হাতে ঝুলিয়ে রাখা বা ব্যাগবন্দী করা ছাড়া উপায় নেই!

এই সব দেখেই ইউনিক আইডেন্টিফিকেশন অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (Unique Identification Authority of India) সংক্ষেপে UIDAI-এর টনক এবার নড়েছে! দেশের মানুষের সুবিধার জন্য তারা এবার আধার কার্ডের গড়ন যেমন শক্তপোক্ত করতে চলেছে, তেমনই আয়তনও গুটিয়ে করে ফেলেছে একেবারে ছোটখাটো- যাতে খুব সহজেই তা ওয়ালেটে ভরে রাখা যায়। নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে এই মর্মে হ্যাশট্যাগও দিয়েছে UIDAI- #AadhaarInYourWallet!

UIDAI জানিয়েছে যে এই নয়া আধার কার্ড ছাপা হচ্ছে পলিভিনাইল ক্লোরাইড কার্ডে, যে উপাদানে ATM কার্ড ছাপা হয় আর কী! নতুন এই আধার কার্ড দেখতেও হচ্ছে ঠিক ATM কার্ডের মতোই, একে বলা হচ্ছে Aadhaar PVC Card। হলোগ্রাম, গিলোশে প্যাটার্ন, গোস্ট ইমেজিনড মাইক্রো টেক্সট একে নকল হওয়ার হাত থেকে বাঁচাবে। পাশাপাশি, এটি অফলাইনেও ভেরিফাই করা যাবে বলে জানিয়েছে UIDAI। এই কার্ড পেতে হলে ব্যক্তি পিছু ৫০ টাকা করে জমা করতে হবে। আবেদন করে টাকা জমা দেওয়ার পর নাগরিকের ঠিকানায় স্পিড পোস্টের মাধ্যমে এই কার্ড পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

দেখে নেওয়া যাক আবেদন কী ভাবে করতে হবে-

১. সবার প্রথমে এই লিঙ্ক মারফত যেতে হবে UIDAI-এর ওয়েবসাইটে- https://residentpvc.uidai.gov.in/order-pvcreprint

২. এর পর ১২ ডিজিটের আধার কার্ড নম্বর বা ১৬ ডিজিটের ভার্চুয়াল আইডি বা ২৮ ডিজিটের EID টাইপ করতে হবে।

৩. এর পর ক্যাপচা কোডে দেওয়া সিকিউরিটি কোড টাইপ করে ক্লিক করতে হবে Send OTP অপশনে।

৪. রেজিস্টার করা মোবাইল নম্বরে আসা ওটিপি টাইপ করে Submit অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৫. এর পর স্ক্রিনে Aadhaar PVC Card-এর ছবি দেখাবে ডিটেইল-সহ।

৬. এর পর পেমেন্ট অপশনে ক্লিক করে ৫০ টাকা জমা করতে হবে।

৭. পেমেন্ট কনফার্ম হয়ে গেলেই কার্ডের অর্ডার দেওয়ার কাজ শেষ, UIDAI ৪-৫ দিনের মধ্যে বাড়িতে কার্ড পাঠিয়ে দেবে।