জেনে নিন ত্বকের পরিচর্যা করতে ডিম কিভাবে সাহায্য করে

জেনে নিন ত্বকের পরিচর্যা করতে ডিম কিভাবে সাহায্য করে

বর্তমান সময়ে স্বাস্থ্যকর ও উজ্জ্বল ত্বকের জন্য বারবার স্পা, ফেসিয়াল কিংবা বিউটি ট্রিটমেন্টের নাম আসলেও হারিয়ে যায়নি আদিকালের সেই হারবাল উপাদানগুলো। আর সেই তালিকার অন্যতম একটি অংশ ডিম। চুলের প্রোটিন ট্রিটমেন্টে ডিমের ব্যবহার সম্পর্কে তো সবাই জানে। তবে ত্বকের যত্নেও ডিমের ভূমিকা কম নয়।আর এই ডিমের প্যাক তৈরির জন্য আপনাকে খুব বেশি কষ্ট করতে হবে না। ঘরোয়া উপায়েই তৈরি করা যায় এই প্যাক। তাহলে জেনে নেওয়া যাক ত্বকের যত্নে ডিম কিভাবে সাহায্য করে।

১.সবধরণের ত্বকের জন্য -  ডিমের সাদা অংশ এবং দুধ ভাল করে মিশিয়ে নিতে হবে। এর সাথে কিছু গাজরের রস দিয়ে দিতে হবে। এবার মুখটি ধুয়ে এই প্যাকটি ত্বকে ব্যবহার করতে হবে। ১৫-২০ মিনিট পর জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে।এটি সব ধরণের ত্বকের জন্য উপযোগী।

২.শুষ্ক ত্বকের জন্য- একটি ডিমের কুসুম, এক চা চামচ মধু একসাথে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। এটি ত্বকে লাগিয়ে রাখতে হবে ১০ থেকে ১৫ মিনিট। ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে।এটি ত্বকের রক্ষতা দূর করে ত্বক আর্দ্র করে তুলবে।

৩.বলিরেখা রোধের জন্য- ডিমের কুসুম থেকে সাদা অংশ আলাদা করে নিতে হবে। মুখ ভাল করে ধুয়ে নিতে হবে। একটি তুলোর বল ডিমের সাদা অংশে ভিজিয়ে সেটি মুখে ভাল করে লাগাতে হবে। ১০-১৫ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। এই প্যাক ত্বকের রক্ত চলাচল সচল রাখে। এটি ত্বকের বলিরেখা দূর করে ত্বক ক্লিয়ার রাখতে সাহায্য করবে।

৪.তৈলাক্ত ব্রণপ্রবণ ত্বকের জন্য- কিছু ডিমের সাদা অংশের সাথে মুলতানি মাটি মিশিয়ে নিতে হবে। প্যাকটি ভালো করে মেশাতে হবে। খুব বেশি পাতলা যেন না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। এই প্যাকটি ত্বকে ব্যবহার করতে হবে। ১৫-২০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। এই প্যাকটি ত্বক থেকে অতিরিক্ত তেল শুষে নিবে। ব্রণ হওয়ার প্রবণতা হ্রাস করবে।

৫.ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির জন্য- কিছু বেসনের সাথে ডিমের সাদা অংশ মিশিয়ে নিতে হবে। এরসাথে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মেশাতে হবে। লেবুর রস মিশ্রণের সাথে ভালো করে মেশাতে হবে। এটি ত্বকে ব্যবহার করতে হবে। শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে ত্বক ধুয়ে ফেলতে হবে। নিয়মিত ব্যবহারে এটি ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করবে।

৬.মুখের ত্বকের লোমকূপ দূর করতে- মুখের অবাঞ্ছিত লোমকূপ কমাতে ডিমের সাদা অংশ ভালোভাবে ফেটে পরিষ্কার ত্বকে মাখতে হবে। ২০ মিনিট অপেক্ষা করে হালকা গরম জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে।