বাঁ দিকে কাত হয়ে ঘুমানো এর স্বাস্থ্যোপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিন

বাঁ দিকে কাত হয়ে ঘুমানো এর স্বাস্থ্যোপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিন

প্রত্যেকের ঘুমোনোর ধরণ একে অপরের থেকে ভিন্ন। কেউ কেউ ডান দিক ফিরে ঘুমোতে পছন্দ করেন, আবার কেউ বাম দিকে ফিরে ঘুমোন। কিন্তু আপনি কি জানেন যে আপনার ঘুমোনোর অবস্থান আপনার স্বাস্থ্যকে নানাভাবে প্রভাবিত করে? তাই এমন একটি ঘুমের অবস্থান সম্পর্কে জেনে রাখুন, যা স্বাস্থ্যের উন্নতিতে খুবই সহায়ক বলে প্রমাণিত হয়।অবস্থানটি হল বাঁ দিকে কাত হয়ে ঘুমানো। তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই বাঁ দিকে কাত হয়ে ঘুমানো এর স্বাস্থ্যোপকারিতা সম্পর্কে।

১.শরীরের অঙ্গ প্রত্যঙ্গ ঠিক থাকে- আয়ুর্বেদে, বাঁ দিকে ঘুমানোকে সর্বোত্তম অবস্থান হিসাবে বর্ণনা করা হয়েছে। আয়ুর্বেদ অনুসারে, বাঁ দিক ফিরে ঘুমোলে সুস্বাস্থ্য বজায় থাকে, কারণ এই অবস্থানে শরীরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ভালোভাবে কাজ করতে সাহায্য করে।

২.খাবার হজম করে- খাবার হজম হতে সাহায্য করে। বাঁ দিক ফিরে শুলে পাকস্থলী ও অগ্ন্যাশয়ও বাঁ পাশে ঘুমিয়ে তাদের কাজ ভালো করে। অগ্ন্যাশয় দ্বারা নিঃসৃত এনজাইমগুলিও নিয়মিত থাকে।

৩. গর্ভবতী মহিলাদের জন্য উপকারী- স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, গর্ভবতী মহিলাদের যতটা সম্ভব বাঁ দিক ফিরে ঘুমোনো উচিত। আসলে, গর্ভাবস্থায় বাঁ দিকে ঘুমোলে মহিলাদের কোমরের চাপ কমে যায় এবং একই সঙ্গে জরায়ু ও ভ্রূণে রক্ত চলাচল ঠিকমতো হয়। বাঁ দিকে ঘুমোলে সমস্ত পুষ্টিগুলি আরও সহজে প্লাসেন্টায় পৌঁছতে পারে।

৪.নাক ডাকার সমস্যা কমে- আপনি সম্ভবত জেনে অবাক হবেন যে বাঁ দিকে ঘুমোলে নাক ডাকার সমস্যা উল্লেখযোগ্যভাবে কমে যায়। আসলে, বাঁ দিক ফিরে ঘুমোলে, জিহ্বা এবং গলা একটি নিরপেক্ষ অবস্থানে থাকে, যে কারণে ঘুমোনোর সময় শ্বাস নিতে কোনও সমস্যা হয় না।

৫.ঘাড়,পিঠ ব্যাথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়- এই সমস্ত স্বাস্থ্য উপকারিতা ছাড়াও, ঘাড় এবং পিঠের ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। কিডনি ও লিভার ভালো কাজ করে। গ্যাস ও বুকজ্বালার সমস্যা নেই। আলঝেইমারের ঝুঁকিও কমে।