তোকমা বীজ এর কার্যকারিতা সম্পর্কে জেনে নিন

তোকমা বীজ এর কার্যকারিতা সম্পর্কে  জেনে নিন

তোকমা বীজ সাধারণত আমরা অনেকেই চিনি না। ছোট ডিম্বাকৃতি এই বীজ নানান পুষ্টিগুণে ভরপুর।জলে ভিজিয়ে রেখে এই বীজ খেতে হবে।এই বীজ লেবু ও চিনি মিশিয়ে সরবত করেও খাওয়া যেতে পারে। তোকমা বীজ রোজ সকালে খেলে আমাদের শরীরের প্রয়োজনীয় ক্যালসিয়াম ও ম্যাংগানিজের ঘাটতি অনেকটাই পূরণ করে। তোকমা সাধারণত এশিয়াতে বেশি পরিমাণে চাষ করা হয়। তাহলে জেনে নেওয়া যাক তোকমা বীজের কি কি উপকারীতা রয়েছে-

১.ওজন কমাতে- তোকমা দানায় আলফা-লিনোলেনিন আ্যসিড থাকায় এটি ওজন কমাতে সাহায্য করে। তাছাড়া এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকায় আমাদের পেট অনেকক্ষণ ভরে থাকে ও খাবারের ক্যালোরি পরিমাণ কমে যায়।

২.রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ- এটি দেহের বিপাকের গতি ধীর করে দেয় এবং কার্বসকে গ্লুকোজে রূপান্তরিত করে। হেলদিফেইম এর মতে তোকমা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য বিশেষ উপকারী।

৩.কোষ্ঠকাঠিন্য এবং অম্লতা দূর- এটি মূলত জল কম খাওয়ার কারনে কিংবা শরীরে জলের মাত্রা কমে গেলে কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দেয়। তোকমা জলেতে ভেজানোর ফলে এতে প্রচুর জল যুক্ত হয় এবং পেটে জমে থাকা আস্তরণ নরম করে এবং অন্ত্রের গতিবেগকে উৎসাহ দেয়।

৪. সর্দি কাশি দূর করতে- তোকমা দানা  স্পাসাম্যাটিক পেশীগুলি প্রশমিত করে এবং তাদের শিথিল করতে সহায়তা করে। যা হুপিং কাশি নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। পাশাপাশি এটি দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

৫. ত্বক ও চুল সুস্থ রাখতে- নিয়মিত তোকমা দানা খেলে  শরীরে কোলাজেন নিঃসরণে সহায়তা করে যা ত্বকের নতুন কোষ গঠনে সহায়তা করে এবং  স্কিন হয়ে ওঠে আরও বেশি সতেজ। পাশাপাশি যদি লম্বা ও শক্ত চুল চাওয়া হয় তাহলে প্রয়োজন ভিটামিন-কে, আয়রন ও প্রোটিন তোকমায় এই সকল উপাদান বিদ্যমান। আর তোকমা দানার অ্যান্টিঅএক্সিডেন্ট ত্বক ও চুলের জন্য বিশেষ উপকারী।

৬.দেহের তাপ কমায়- গরম আবহাওয়ার দেশগুলোতে বহু মানুষ তোকমার শরবত পান করে। এটি সুস্বাদু করার জন্য চিনি, মধু এবং কোথাও কোথাও নারিকেল দুধ দেওয়া হয়।এটি পান করা হয় দেহের তাপ কমানোর জন্য।