ত্বকের যত্নে টমেটোর অবদান সম্পর্কে জেনে নিন

ত্বকের যত্নে টমেটোর অবদান সম্পর্কে জেনে নিন

মসৃণ, কোমল এবং ঝলমলে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ত্বক কে না চায়! ত্বকের সৌন্দর্য, বিশেষ করে মুখের ত্বক সুন্দর রাখতে অনেক মানুষ কত কিছুই না করে থাকে, যেমন - ক্লিনজিং, এক্সফোলিয়েশন, ময়েশ্চারাইজিং, ফেস প্যাক, ফেস মাস্ক, ফেসিয়াল, টোনার, আরও কত কি।ত্বকের যত্নের ক্ষেত্রে টমেটো একাই একশো।মুখ পরিষ্কার করা থেকে শুরু করে, ট্যান দূর করা এবং ব্রণর সমস্যা দূর করতে টমেটো অত্যন্ত কার্যকরী।

টমেটোতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাসিয়াম ও ভিটামিন ‘সি’, যা উজ্জ্বল ত্বক পেতে সাহায্য করে।টমেটোতে লাইসোপিন নামের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে, যা ত্বকের বিভিন্ন দাগ, বলিরেখা এবং শুষ্কভাব দূর করে ত্বক মসৃণ করে। তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই ত্বকের যত্নে টমেটো এর ভূমিকা সম্পর্কে।

১.মৃত কোষ দূর করে- অতিরিক্ত দূষণ, ধুলো-বালির কারণে, ত্বক প্রচুর পরিমাণে ময়লা এবং তেল শোষণ করে। যার ফলে ধুলো-ময়লা ত্বকের ছিদ্র আটকে দেয়। ত্বক সাধারণভাবে পরিষ্কার করা হলে এই সমস্যা থেকে সহজে মুক্তি মেলে না, এর জন্য ত্বককে সঠিকভাবে এক্সফলিয়েট করা অত্যন্ত প্রয়োজন। টমেটোতে প্রচুর পরিমাণে এনজাইম বর্তমান, যা এক্সফোলিয়েটর হিসেবে খুব ভাল কাজ করে এবং ত্বকের মৃত কোষ দূর করে। টমেটো পাল্প নিয়ে সরাসরি মুখে ঘষতে হবে এবং কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলতে হবে।

২.ব্রণ হ্রাস করতে সহায়তা করে- ব্রন এবং ফুসকুড়ি সমস্যার সমাধানের ক্ষেত্রে টমেটো অত্যন্ত উপকারি। টমেটোর রসের অম্লতা ব্রণ নিরাময়ের ক্ষেত্রে দুর্দান্ত কার্যকর। টমেটোর পাল্পে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য বর্তমান। এছাড়াও টমেটো ভিটামিন এ এবং সি এর দুর্দান্ত উৎস, যা ব্রণ-পিম্পলের সমস্যা দূর করতে অত্যন্ত সহায়ক।

৩.ত্বকের তৈলাক্ততা কমায়- টমেটো প্রাকৃতিকভাবে আম্লিক, এটি ত্বকের PH-এর মাত্রার ভারসাম্যতা বজায় রাখে এবং ত্বকের sebaceous glands দ্বারা অতিরিক্ত তেলের উৎপাদনকেও নিয়ন্ত্রণ করে। যার ফলে ত্বকের তৈলাক্ত ভাব কমে।

৪.ব্ল্যাকহেডস কমাতে সহায়তা করে- টমেটোতে অ্যাসিটিক আ্যসিড বৈশিষ্ট্য বর্তমান। তাই টমেটোর রস মুখে লাগানো হলে, ত্বকের অতিরিক্ত তেল ও জমে থাকা ময়লা দূর হয় এবং ব্ল্যাকহেডস তৈরির ক্ষেত্রেও বাধা পড়ে।

৫.অ্যান্টি-এজিং- টমেটোতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য বর্তমান, যা বলিরেখা দূর করতে দুর্দান্ত কার্যকর। টমেটো বার্ধক্যের লক্ষণগুলি প্রকট হতে বাধা দেয় এবং অকাল বার্ধক্যও রোধ করতে সহায়তা করে।

৬.ত্বককে কোমল করে- টমেটো মুখের যত্নের ক্ষেত্রে অত্যন্ত উপকারি। এটি কোলাজেন এবং এলাস্টিনের গঠনকে উদ্দীপিত করে, ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা বজায় রাখতে সহায়তা করে। এর ফলে ত্বক নরম এবং বলিরেখা মুক্ত থাকে।

৭.সানবার্নের সমস্যা দূর করতে সহায়তা করে- ট্যান দূর করার ক্ষেত্রে টমেটো অত্যন্ত কার্যকর। টমেটোতে থাকা ভিটামিন সানবার্ন ত্বক ঠিক করতে সহায়তা করে। এছাড়াও, ত্বকের লালচে ভাব এবং প্রদাহ নিরাময়েও অত্যন্ত কার্যকর।