ত্বকের যত্নে চা এর অবদান জেনে নিন

ত্বকের যত্নে চা এর অবদান জেনে নিন

 প্রায় সর্বত্রই চায়ের রয়েছে বিশেষ কদর। তবে চায়ের যোগ্যতা কেবল আড্ডার আসরে আ অবসরেই নয়, চা পাতা ও লিকার চা ব্যবহার করে ত্বক ও চুলেরও নানা উপকার করতে পারেন।চা পাতার ব্যবহারে  ত্বকের নানা উপকার সাধন হয়। চায়ে থাকা বিভিন্ন উপাদান ত্বকের যত্নে প্রাকৃতিক ভেষজ হিসেবে কাজ করে। চা পাতার ক্যাফিন ও ট্যানিন থাকায় ত্বক এর পরিচর্যায় কাজে আসে এটি। চোখের নীচে ডার্ক সার্কল থেকে শুরু করে কন্ডিশনারের বিকল্পের খোঁজ, এমন অনেক সমাধানই লুকিয়ে আছে চা পাতায়। তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই ত্বকের যত্নে চা পাতা এর উপকারিতা সম্পর্কে।

১.ঠাণ্ডা ও উজ্জ্বল ত্বকের জন্য -  গ্রিন টিয়ের ভাপ ত্বকের জ্বলুনি কমাতে সাহায্য করে এবং এর অ্যান্টি-এজিং উপাদান বলিরেখা রোধ করে।এটা লোমকূপ উন্মুক্ত করার পাশাপাশি ত্বক পরিষ্কার ও আর্দ্র রাখতে সহায়তা করে।এক বাটি গরম জলেতে কয়েকটা গ্রিন টিয়ের পাতা দিয়ে ১০ মিনিট ভাপ নিতে হবে। এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। এছাড়াও, ভাপ নেওয়া শ্বাসনালী ও সর্দি কাশির সমস্যা দূর করে।

২.চোখের ফোলাভাব কমাতে- ক্লান্তি বা কাজের চাপে ঘুমের অভাবের কারণে চোখের উজ্জ্বলতা হারাতে পারে। এই সমস্যা সমাধান করতে ঠাণ্ডা টি ব্যাগ ফোলা চোখের ওপরে রেখে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে।এর অস্বস্তিনাশক ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান চোখের চারপাশের ফোলাভাব কমায় এবং ক্লান্তি ও প্রদাহ কমাতে সহায়তা করে।

৩.দাগমুক্ত ত্বক পেতে- চায়ে থাকা ক্যাফেইন ত্বকের নিচে রক্তজালকে সংকুচিত করে এবং কালো দাগ দূর করে। দুই ব্যাগ ব্যবহৃত গ্রিন টি ব্যাগ থেকে চা পাতা বের করে একটি পাত্রে নিয়ে তাতে ২ চা চামচ মধু, আধা চা চামচ দই ও লেবুর রস মেশাতে হবে। প্যাকটি ত্বকে লাগিয়ে ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলতে হবে। নিয়মিত করলে ত্বকের দাগ দূর হবে।

৪.ত্বক পরিষ্কার রাখতে- প্রতিদিনের ধুলা-ময়লায় ত্বক অপরিষ্কার হয়ে পড়ে। নিয়মিত যত্ন না নিলে এটাই হতে পারে ত্বকের ক্ষতির কারণ। চা পাতা দিয়ে খুব সহজেই টোনার তৈরি করে ত্বক পরিষ্কার করা যেতে পারে। গরম জলে গ্রিন টি-ব্যাগ ভিজিয়ে ঠাণ্ডা হওয়ার পর লিকার দিয়ে ত্বক ধুয়ে নিতে হবে। চমৎকার প্রাকৃতিক টোনারের কাজ করে এটি।

৫.ব্রণ থেকে মুক্তি পেতে- ব্রণের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে চা পাতা ব্যবহার করা যেতে পারে। চায়ের লিকার ঠাণ্ডা করে কয়েক ফোঁটা অ্যাসেনশিয়াল তেল মেশাতে হবে। প্রতিদিন তুলা ভিজিয়ে ব্রণের ওপর ১০ মিনিট চেপে ধরতে হবে। ত্বকের অতিরিক্ত তেল দূর করবে ও ব্রণ থেকে মুক্তি দেবে। 

৬.ঠোঁট ফাটা দূর করতে- গ্রিন টি ঠোঁট ফাটা দূর করে। একটা ব্যবহৃত গ্রিন টি-ব্যাগ উষ্ণ গরম জলে ডুবিয়ে ঠোঁটে লাগিয়ে রাখতে হবে।  ঠোঁটের শুষ্কভাব দূর হবে এবং ঠোঁট আর্দ্রতা ফিরে পাবে।