উকুন দূর করতে চাইলে ব্যবহার করুন পিপারমিন্ট তেল

উকুন দূর করতে চাইলে ব্যবহার করুন পিপারমিন্ট তেল

পিপারমিন্ট বিভিন্ন ধরণের পুদিনার মধ্যে একটি যা এর সুগন্ধ এবং গন্ধের জন্য রন্ধনসম্পর্কীয় এবং ঔষধি প্রস্তুতে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়। তবে পিপারমিন্ট তেল বিভিন্ন স্বাস্থ্য এবং সৌন্দর্যের সুবিধার জন্যও ব্যবহৃত হয়। স্বাস্থ্যকর একটি উপকারের মধ্যে রয়েছে সুন্দর এবং স্বাস্থ্যকর চুল Hair পাওয়া। এই তেলটিতে উপস্থিত একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হ'ল মেন্থল যা এটি তার স্বাদযুক্ত গন্ধ, স্বাদ এবং স্বাদ সরবরাহ করে।

এই ফ্যাকাশে হলুদ তেলটি প্রচুর পুষ্টিতে ভরপুর যা ক্যালসিয়াম, আয়রন, ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন এ, ভিটামিন সি সহ কয়েকটি নাম অন্তর্ভুক্ত করে। এই তেলটি দীর্ঘদিন ধরে স্বাস্থ্য এবং সৌন্দর্য বাড়ানোর জন্য ব্যবহৃত হচ্ছে।তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই পিপারমিন্ট তেল চুলের কি কি উপকার করে।

১.চুলের বৃদ্ধি এর জন্য- চুলের পুনঃবৃদ্ধির জন্য কার্যকরভাবে পিপারমিন্ট তেল ব্যবহার করতে পারেন কারণ এই চুলের তেল মেনের জন্য দুর্দান্ত। এই তেল সহজে চুলের শিকড়গুলিতে প্রবেশ করতে পারে, ফলে চুলের ফলিকিকে উদ্দীপিত করে। পেপারমিন্ট তেল মাথার ত্বকে রক্ত ​​সঞ্চালন উন্নত করতেও কার্যকর, যা চুল পড়া রোধেও কার্যকর। 

২.উকুন দূর করতে- মাথা উকুন একটি সুন্দর বিরক্তিকর এবং অস্বস্তিকর চুল সমস্যা হতে পারে। এই তেলের সতেজতা এবং চাঙ্গা সুগন্ধি মাথার উকুনের জন্য একটি বিষের মতো কাজ করে। এই তেলের তীব্র গন্ধ উকুনকে মেরে ফেলে এবং আরও আক্রমণ প্রতিরোধ করে এই তেলটি দিয়ে কেবল মাথাটি কয়েকবার ম্যাসাজ করতে হবে এবং তেলটি রাতারাতি রেখে দিতে হবে, পরদিন চুল ধুয়ে ফেলতে হবে। 

৩.স্ক্যাল্পের শুষ্কতা দূর করে- যাদের স্ক্যাল্প বা মাথার তালু খুব শুষ্ক, তাঁদের জন্য পিপারমেন্ট অয়েল এক মহৌষধি হিসেবে কাজ করে। অনেকের জন্মগতভাবে চুল এবং মাথার তালু শুষ্ক হয়, আবার অনেকের শুধুমাত্র শীতকালে মাথার তালু শুষ্ক হয়ে যায়। দুই ক্ষেত্রেই কিন্তু পিপারমিন্ট অয়েল ব্যবহার করা যেতে পারে। এই তেলটিতে যেহেতু দারুণ ময়শ্চারাইজ করার ক্ষমতা রয়েছে কাজেই চুল ও মাথার তালুর রুক্ষতা দূর করতে পিপারমেন্ট এর উপকারিতা অনেক।

৪.স্ক্যাল্পের কোনও ফাঙ্গাল ইনফেকশন দূর করে- অনেক সময়ে নানা কারণে চুলের গোড়ায় ময়লা জমে মাথার তালুতে ইনফেকশন হয়ে যায় আবার অনেকসময়ে স্ক্যাল্প অ্যাকনে হলে তা খুঁটে দিলেও ইনফেকশন ছড়িয়ে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে ভিটামিন ই ক্যাপসুলের সঙ্গে পিপারমিন্ট অয়েল মিশিয়ে চুলের গোড়ায় লাগাতে পারেন। এছাড়াও যে শ্যাম্পু ব্যবহার করেন তার সঙ্গে পিপারমিন্ট অয়েল মিশিয়ে শ্যাম্পু করতে হবে। ইনফেকশন দূর হবে। 

৫.চুল মোলায়েম করে তোলে- পিপারমিন্ট অয়েলে যেহেতু প্রাকৃতিক রূপেই ময়শ্চারাইজিং প্রপারটিস রয়েছে, কাজেই পিপারমেন্ট অয়েল দিয়ে নিয়মিত চুলে মালিশ করলে, চুলের কিউটিক্যাল সারাই করা যায় এবং ফলে চুল হয়ে ওঠে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল, মোলায়েম এবং জেল্লাদার।