অনামিকায় তামার আংটি ধারণ করলে জীবনে কী কী সুফল পাওয়া যায় জানেন?

অনামিকায় তামার আংটি ধারণ করলে জীবনে কী কী সুফল পাওয়া যায় জানেন?

সবার জীবনে গ্রহ নক্ষত্রের ভাল মন্দ ফলাফল থাকে। নক্ষত্রের কুপ্রভাব থেকে বাঁচতে আমরা ভিন্ন ভিন্ন ধাতু ব্যবহার করে থাকি। জ্যোতিষশাস্ত্র অনুযায়ী সমস্ত গ্রহের অধিপতি গ্রহ স্বয়ং রবি। হিন্দু ধর্ম অনুযায়ী তামা, সোনা, রুপো খুবই শুভ ধাতু। হিন্দুধর্মের প্রায় সব পুজোতেই এই তিনটি ধাতু ব্যবহার করা হয়। এই তিনটি ধাতু খুবই শুভ হওয়ার জন্য অনেকেই এই ধাতুর গয়না তৈরি করে থাকেন।

তামাকে রবি গ্রহ অর্থাৎ সূর্য দেবের ধাতু হিসেবে দেখা হয়। তাই তামার আংটি ধারণ করলে নানা রূপ সুফল পাওয়া যায়। তামার আংটি ধারণের আঙুল হল অনামিকা।হাতের পাঁচটি আঙুলের মধ্যে অনামিকা হল সূর্যের আঙুল। তাই এই আঙুলেই তামার আংটি ধারণ করতে হয়।  অনামিকায় তামার আংটি ধারণ করলে কী কী সুফল পাওয়া যায়—

• অনামিকায় তামার আংটি ধারণ করলে জন্মকুণ্ডলীতে থাকা রবি গ্রহের দোষ অনেকটা কমে যায়।

• যদি মঙ্গলের স্থান দুর্বল থাকে, তা হলেও সেই দোষ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

• এই আঙুলে তামার আংটি পরলে সূর্যদেবের কৃপা লাভ করা যায় এবং সূর্যদেবের কৃপায় ধন সম্পদ, সন্তান, আয়ু, বিদ্যা, যশ, মিত্র, কির্তী, বৈভব, সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য ইত্যাদি লাভ করা যায়।

• সূর্যদেবকে সন্তুষ্ট করতে পারলে এবং আশীর্বাদ প্রাপ্তি হলে সমাজে সম্মান ও প্রতিপত্তি বৃদ্ধি পাবে।

• অনামিকায় তামার আংটি পরলে আর্থিক উন্নতি হতেও দেখা যায়।

• এ ছাড়া তামার আংটি ধারণ করলে নানাবিধ রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। পেটের অসুখ কম হয় এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়। তামার আংটি ধারণের সঠিক সময়— যে কোনও রবিবার স্নান করার পর যে কোনও হাতের অনামিকায় ধারণ করতে হব।