কয়লা-কাণ্ডে সিবিআইয়ের ফের তলব লালাকে ,বাড়লো রক্ষাকবচের মেয়াদ

কয়লা-কাণ্ডে সিবিআইয়ের ফের তলব লালাকে ,বাড়লো রক্ষাকবচের মেয়াদ

কয়লা পাচার কাণ্ডে জেরা করতে পুরুলিয়ার ব্যবসায়ী অনুপ মাঝি ওরফে লালাকে ফের তলব করল সিবিআই। জানা গিয়েছে, আগামী কাল বৃহস্পতিবার তাঁকে ফের নিজাম প্যালেসে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্ত এজেন্সি। এর আগে লালাকে তিনদিন জেরা করেছে সিবিআই। বৃহস্পতিবার তিনি চতুর্থবারের মতো জেরার মুখোমুখি হবেন।

যদিও তাঁর বিরুদ্ধে চরম কোনও পদক্ষেপ করতে পারবে না সিবিআই। কারণ লালা ফেরার থাকার সময়েই সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল করেছিলেন। তাঁকে প্রথমে ৬ এপ্রিল পর্যন্ত রক্ষাকবচ দিয়েছিল শীর্ষ আদালত। ফের সেই মেয়াদ বাড়িয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। আদালত বলেছে, ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত লালাকে গ্রেফতার করা যাবে না। যদিও শর্তসাপেক্ষে এই রক্ষাকবচ দেওয়া হয়েছে লালাকে।

আদালত স্পষ্ট বলে দিয়েছে, তদন্ত এজেন্সিকে সবরকম সহযোগিতা করতে হবে। ইতিমধ্যেই বাঁকুড়া থানার আইসি অশোক মিশ্রকে কয়লা কাণ্ডে গ্রেফতার করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। তাঁকে দিল্লিতে জেরার জন্য ডেকে পাঠানো হয়েছিল। জেরার মধ্যেই তাঁকে গ্রেফতার করে ইডি। এই অশোক মিশ্র আবার যুব তৃণমূল নেতা বিনয় মিশ্রর আত্মীয়। বিনয়ও কয়লা পাচারে অন্যতম অভিযুক্ত।

তাঁকেও হন্যে হয়ে খুঁজছে পুলিশ। তাঁর ভাই বিকাশ মিশ্র ইতিমধ্যে গ্রেফতার হয়েছেন। তা ছাড়া বিনয়ের বাড়ি, ফ্ল্যাট সিল করে দিয়েছে তদন্ত এজেন্সি। গত আড়াই মাস ধরে কয়লা তদন্তে গতি বাড়িয়েছে সিবিআই। যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা নারুলা, তাঁর বোন মেনকা গম্ভীরকে বাড়ি বয়ে গিয়ে জেরা করেছেন গোয়েন্দারা। মেনকার শ্বশুর ও স্বামীকেও নিজাম প্যালেসে ডেকে সাত ঘণ্টা জেরা করেছিল তদন্ত এজেন্সি। এখন দেখার পরপর লালাকে জেরা করে পরবর্তী পদক্ষেপ কী করে সিবিআই।